Home Uncategorized আমাদের জওয়ানরা বেজিংকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে: সংসদে জানালেন রাজনাথ সিং

আমাদের জওয়ানরা বেজিংকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে: সংসদে জানালেন রাজনাথ সিং

লাদাখ সীমান্তে আমাদের জওয়ানরা বেজিংকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে সংসদের বাদল অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনে এমনটাই জানিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং।এদিন লোকসভায় লাদাখ নিয়ে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। এদিন, “লাদাখ সীমান্তে আমাদের উন্নয়ন”( Developments on our borders in Ladakh) শীর্ষক আলোচনায় ভারত ও চিনের মধ্যে সংঘর্ষের বিষয়টি তুলে ধরেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। রাজনাথ সিংয়ের বিবৃতির পরেই লোকসভা থেকে ওয়াক-আউট করে কংগ্রেস।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, ‘এর আগেও সীমান্ত উত্তপ্ত পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে একাধিক বার৷ কিন্তু শান্তিপূর্ণ ভাবে তা মিটে গিয়েছে৷ কিন্তু এ বছর পরিস্থিতি একেবারে আলাদা৷ তবে ভারত শান্তিপূর্ণ ভাবে সমস্যা মেটাতে বদ্ধপরিকর৷ লাদাখ সীমান্তে প্রায় ৩৮ হাজার বর্গ কিলোমিটার চিন বেআইনি ভাবে দখলের চেষ্টা করে যাচ্ছে৷ তবে আমি নিশ্চিত করতে চাই, আমাদের বাহিনীর উত্‍সাহ ও উদ্দীপনা তুঙ্গে৷ এ বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই৷ প্রধানমন্ত্রীর লাদাখ সফর দেশবাসীকে বার্তা দিয়েছে, সেনাবাহনীর সঙ্গে রয়েছে গোটা দেশ৷’

এদিন, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং সেনার প্রশংসা করে বলেন, ‘আমাদের জওয়ানরা বেজিংকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে। গালওয়ানে সংঘর্ষে ভারতের ২০ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু চিনের পক্ষে তার চেয়ে অনেক বেশি ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। আবার যেখানে সংযম দেখানোর দরকার, জওয়ানরা সেখানে সংযম ও ধৈর্য দেখিয়েছে। এই শৃঙ্খলা ও শৌর্যের জন্য শুধু সংসদ নয়, সারা দেশবাসীর ভারতীয় সেনার পাশে দাঁড়ানো উচিত।’

তাছাড়াও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং জানান, লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় বিরাট সংখ্যক সেনা মোতায়েন করেছে চিন৷ গোগরা, প্যাংগং লেক সহ একাধিক এলাকায় নানা ফ্রিকশন পয়েন্টে চিনের সেনা মোতায়েন করা রয়েছে৷ ভারতও পাল্টা হিসেবে সেনা ও রসদ মজুত করতে শুরু করে। এ নিয়ে সামরিক পর্যায়ে দুপক্ষের বৈঠক, আলোচনা চলছিল। সেনা সরানোর প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছিল। তার মধ্যেই প্যাংগংয়ে বড়সড় পদক্ষেপ করে চিন। তবে ভারত চায় শান্তিপূর্ণ ভাবে সমস্যা মেটাতে৷

এদিন, সংসদের নিম্নকক্ষে সেনাবাহিনীর সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দাঁড়ানোর প্রতিশ্রুতি দিয়ে একটি প্রস্তাবও পেশ করেন তিনি।তিনি আরও বলেন যে লাদাখ সীমান্তে স্ট্যাটাস বদলের চেষ্টা করেছ চীন, তবে যে কোনও পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে প্রস্তুত ভারতীয় সেনা। ভারত যে কোন অর্থে তার সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা রক্ষা করবে। এদিকে লোকসভায় রাজনাথের বক্তৃতার পরই ইন্দো-চিন সীমান্ত ইস্যু নিয়ে আলোচনার দাবিতে ওয়াক আউট করেন কংগ্রেস সাংসদরা। পরে গান্ধী মূর্তির পাদদেশে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন তাঁরা।